আজ মঙ্গলবার, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

করোনায় দুইশ দিনে সর্বনিম্ন সংক্রমণ ভারতে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

দক্ষিণ এশিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ভারতে মহামারি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির নাটকীয় উন্নতি হয়েছে। গেল ২৪ ঘণ্টায় প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা নেমেছে দুইশর নিচে। একই সঙ্গে ২০১ দিন পর নতুন সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ২০ হাজারের নিচে নেমে এসেছে। শেষ এক দিনে দেশটিতে সক্রিয় কোভিড রোগীর সংখ্যাও হ্রাস পেয়েছে। আর সুস্থতার হার বৃদ্ধির পাশাপাশি সংক্রমণের হার নেমেছে দেড় শতাংশের নিচে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ঘনবসতিপূর্ণ দেশটিতে নতুন করে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ১৮ হাজার ৭৯৫ জন মানুষ। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় দেশটিতে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে সাত হাজারের বেশি। সর্বশেষ এই সংখ্যাসহ মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এ পর্যন্ত কোভিড আক্রান্তের মোট সংখ্যা বেড়ে তিন কোটি ৩৬ লাখ ৯৭ হাজার ৫৮১ জনে দাঁড়িয়েছে।

অপর দিকে মঙ্গলবার ভারতে প্রাণহানির সংখ্যা নেমে এসেছে দুইশর নিচে। গত এক দিনে দেশটিতে মৃত্যুবরণ করেছেন ১৭৯ জন। অর্থাৎ শেষ ২৪ ঘণ্টায় প্রাণহানির সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে ৯৭ জন। মহামারির শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে প্রাণ হারিয়েছেন চার লাখ ৪৭ হাজার ৩৭৩ জন।

এ দিকে সংক্রমণ কমে আসার সঙ্গে সঙ্গে ভারতে সুস্থতার সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে কোভিড আক্রান্ত হওয়া মানুষের তুলনায় সুস্থ হয়েছেন বেশি মানুষ। ফলে মঙ্গলবার দেশটিতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা আরও কমেছে।

গত একদিনে ভারতে সুস্থ হয়েছেন বা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ২৬ হাজার ৩০ জন মানুষ। অপর দিকে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ হাজারের বেশি। ফলে দেশটিতে মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে দুই লাখ ৯২ হাজার ২০৬ জনে দাঁড়িয়েছে। আর ১৯২ দিন বা ছয় মাসেরও বেশি সময়ের মধ্যে যা সর্বনিম্ন।

ভারতের মোট শনাক্ত রোগীর শূন্য দশমিক ৮৭ শতাংশ (০.৮৭%) বর্তমানে সক্রিয় রোগী। সোমবারের তুলনায় মঙ্গলবার এই হার হ্রাস পেয়েছে। এ দিকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে সুস্থতার হারও বৃদ্ধি পেয়েছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গেল ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৮১ শতাংশ। যা ২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে সর্বোচ্চ।

অন্য দিকে ভারতে দৈনিক সংক্রমণের হার নেমে দেড় শতাংশের নিচে এসেছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, শেষ এক দিনে দেশটিতে দৈনিক সংক্রমণের হার ১ দশমিক ৪২ শতাংশ। গত ২৯ দিন ধরে দেশটিতে এই হার তিন শতাংশের নিচেই রয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চ প্রাণঘাতী ভাইরাসটিকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি সংস্থাটি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরো সংবাদ

ফেসবুকে খবর২৪ বিডি ডট নেট